loader image for Bangladeshinfo

শিরোনাম

  • বাংলাদেশ-চীনের সম্পর্কোন্নয়নে আরও মনোযোগ দেওয়া উচিত: প্রধানমন্ত্রী

  • রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসনে ওআইসিসহ আন্তর্জাতিক সংস্থাগুলোর দৃঢ় প্রতিশ্রুতির আহ্বান

  • রদ্রিগোর দুই গোলে সেভিয়াকে পরাজিত করেছে রিয়াল

  • ডর্টমুন্ডকে হতাশ করে বায়ার্নের টানা একাদশ শিরোপা

  • মেসির রেকর্ডের রাতে পিএসজি’র শিরোপা জয়

মিলানের পরাজয়ের দিনে ইব্রাহিমোভিচের রেকর্ড


মিলানের পরাজয়ের দিনে ইব্রাহিমোভিচের রেকর্ড

সুইডিশ তারকা জ্লাটান ইব্রাহিমোভিচ সিরি-আ লিগে সবচেয়ে বেশি বয়সী (৪১ বছর ১৬৬ দিন) খেলোয়াড় হিসেবে গোল করার রেকর্ড গড়েছেন। তবে, তাঁর এই রেকর্ড গোলও এসি মিলানের ভাগ্য পরিবর্তন করতে পারেনি। বর্তমান চ্যাম্পিয়ন ক্লাবটিকে শনিবার (১৮ মার্চ) উদিনেজের কাছে ৩-১ ব্যবধানে পরাজয় মেনে নিতে হয়েছে। গত বছর জানুয়ারির পরে প্রথমবারের মতো মিলানের মূল একাদশে খেলতে নেমেছিলেন ইব্রা। প্রথমার্ধের ইনজুরি টাইমে স্পট কিক থেকে ইব্রাহিমোভিচের গোল মিলানকে সমতায় ফেরায়। এর আগে, নবম মিনিটে রবার্তো পেরেইরার পেনাল্টির গোলে এগিয়ে গিয়েছিল স্বাগতিক উদিনেজে। যাহোক, ইব্রার এই গোল মিলানের পরাজয় ঠেকাতে যথেষ্ট ছিল না।

এনিয়ে শেষ পাঁচটি অ্যাওয়ে ম্যাচের চারটিতেই পরাজিত হলো চতুর্থ স্থানে থাকা মিলান। এই ম্যাচে জিততে পারলে সংক্ষিপ্ত সময়ের জন্য হলেও স্টিফানো পিওলির দল সিরি-আ টেবিলের দ্বিতীয় স্থানে উঠে আসতে পারতো। এই মুহূর্তে দ্বিতীয় স্থানে থাকা নগর-প্রতিদ্বন্দ্বী ইন্টার মিলানের চেয়ে পিওলির দল দুই পয়েন্ট পিছিয়ে রয়েছে।

ম্যাচ শেষে পিওলি বলেছেন, ‘যখন কোনো দল এমন খেলা উপহার দেয়, তখন মনে হয়, কোচ তাঁর দায়িত্ব সঠিকভাবে পালন করেনি। আমরা আমাদের নিজেদের মানের চেয়ে অনেক খারাপ খেলেছি। লিগে আমরা মোটেই স্বস্তিকর পজিশনে নেই। শীর্ষ চার-এ থাকাটা সত্যিই গুরুত্বপূর্ণ। গত কয়েক সপ্তাহ যাবত আমরা মোটেই ভালো খেলছি না।’

অধিনায়কের আর্মব্যান্ড পড়ে মাঠে নামা ইব্রাহিমোভিচ তাঁর প্রথম স্পট কিকটি মিস করেছিলেন। কিন্তু, উদিনেজে স্ট্রাইকার বেটো পেনাল্টি আইন ভঙ্গ করায় আবারো স্পট কিকের সুযোগ পায় মিলান; এবার আর ভুল করেননি ইব্রা।

এর আগে, চলতি মৌসুমে তিনটি ম্যাচে ইব্রাহিমোভিচ বদলি খেলোয়াড় হিসেবে মাঠে নেমেছিলেন। তিনি গত বছরের মে মাস থেকে হাঁটুর গুরুতর লিগামেন্ট ইনজুরির কারণে মাঠের বাইরে ছিলেন। পরবর্তী সময়ে তাঁর হাঁটুতে অস্ত্রোপচার করা হয়।

জাকা বিওলের হ্যান্ডবলে মিলান পেনাল্টি উপহার পেয়েছিল। তবে, রেফারির এই সিদ্ধান্তের প্রতিবাদ করায় উদিনেজে কোচ আন্দ্রেয়া সোট্টিলকে ডাগ আউট ছাড়তে হয়ে। এই গোলের দুই মিনিটের মধ্যে ইসাক সাকসেসের লো ক্রসে বেটো গোল করে উদিনেজেকে আবারো এগিয়ে দেন। এর মাধ্যমে বেটো তাঁর ভুল কিছুটা হলেও শোধরাতে পেরেছেন।

৭০ মিনিটে ডেসটিনি উদোগিয়ের পাসে কিংসলে এহিজিবুর গোলে উদিনেজের টানা দ্বিতীয় জয় নিশ্চিত হয়। অক্টোবরের পরে এটি ক্লাবটির তৃতীয় জয়। সেপ্টেম্বরের মাঝামাঝি থেকে ঘরের মাঠে প্রথম এই জয়ে উদিনেজে টেবিলের অষ্টম স্থানে উঠে এসেছে।

একইদিনে, বোলোনিয়া ২-২ গোলে সালেরনিতানার সাথে ড্র করায় উদিনেজে বোলোনিয়ার চেয়ে এক পয়েন্ট উপরে উঠে ইউভেন্টাসের সমান ৩৮ পয়েন্ট সংগ্রহ করেছে।

উদিনেজের অভিজ্ঞ আর্জেন্টাইন মিডফিল্ডার রবার্তো পেরেইরা বলেছেন, ‘এটা সত্যিই দারুণ এক জয় ছিল। আমাদের সময়টা ভালো যাচ্ছিল না। কিন্তু, সবাই কঠোর পরিশ্রম করেছি; এই জয়টা আমাদের প্রাপ্য ছিল। আমরা সঠিক পথেই আছি; এখন প্রয়োজন শুধু ধারাবাহিকতা ধরে রাখা। আমরা আমাদের মান সম্পর্কে জানি। আমাদের হাতে এখন আর মাত্র ১১টি ম্যাচ বাকি রয়েছে। প্রতিটি ম্যাচেই নিজেদের প্রমাণ করতে চাই।’

দিনের প্রথম ম্যাচে ধুকতে থাকা ক্রিমোনেসের সাথে ১-১ গোলে ড্র করেছেন মোঞ্জা।

Loading...