loader image for Bangladeshinfo

শিরোনাম

  • রদ্রিগোর দুই গোলে সেভিয়াকে পরাজিত করেছে রিয়াল

  • ডর্টমুন্ডকে হতাশ করে বায়ার্নের টানা একাদশ শিরোপা

  • মেসির রেকর্ডের রাতে পিএসজি’র শিরোপা জয়

  • এফবিসিসিআই বঙ্গবাজারের ব্যবসায়ীদের এক কোটি টাকা দিয়েছে

  • জায়েদা খাতুন গাজীপুর সিটি মেয়র পদে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত

ইন্টারের বিরুদ্ধে ইউভেন্টাসের জয়; এগিয়ে চলেছে নাপোলি


ইন্টারের বিরুদ্ধে ইউভেন্টাসের জয়; এগিয়ে চলেছে নাপোলি

ইউভেন্টাস ফিলিপ কোস্টিচের একমাত্র গোলে রোববার (১৯ মার্চ) ইন্টার মিলানকে পরাজিত করেছে। দিনের আরেক ম্যাচে তুরিনোকে ৪-০ গেলে বিধ্বস্ত করে সিরি-আ টেবিলের শীর্ষে থাকা নাপোলি তাঁদের পয়েন্টের ব্যবধান ১৯’এ উন্নীত করেছে। সার্বিয়ান উইঙ্গার কোস্টিচ সান সিরোতে কাউন্টার অ্যাটাক থেকে ২২ মিনিটে জয়সূচক গোলটি করেন। মৌসুমে এটি তাঁর তৃতীয় গোল। ইন্টার কোনোভাবেই বিশ্বাস করতে পারেনি আদ্রিয়েন রাবোয়িতের হ্যান্ডবলের কারণে কেন গোলটি বাতিল করা হয়নি।

ইন্টার কোচ সিমোনে ইনজাগি ম্যাচ শেষে বলেছেন, ভিএআর যুগে এই ধরনের গোল দেওয়াটা সত্যিই মেনে নেওয়া যায় না। রেফারির এই সিদ্ধান্তে অনেকটাই হতবাক হয়েছে পুরো দল। ভিএআর কর্মকর্তারা অবশ্য কিছু সময় নিয়েছেন গোলটি উপহার দিতে। সুস্পষ্ট কোনো ইমেজে হ্যান্ডবল ধরা পড়েনি।

এই জয়ে সপ্তম স্থানে থাকা ইউভেন্টাসের পয়েন্ট এখন ৪১, চ্যাম্পিয়ন্স লিগ পজিশন থেকে দলটি আর মাত্র সাত পয়েন্ট দূরে রয়েছে।

ম্যাচ শেষে ইউভেন্টাসের কোচ ম্যাসিমিলিয়ানো আলেগ্রি বলেছেন, ‘রেফারির সিদ্ধান্ত অবশ্যই মেনে নেয়া উচিৎ।’

ইন্টারের ধারাবাহিকতার অভাব পুরো মৌসুমেই ছিল চোখে পড়ার মতো। এনিয়ে দলটির নবম পরাজয় ছিল হতাশাজনক।

নাপোলির লিগ শিরোপা নিশ্চিতে আর মাত্র ১৫ পয়েন্ট বাকি। এমনকি লাৎসিও যদি অবশিষ্ট ১১টি ম্যাচেই জয়ী হয়, তারপরও নাপোলিকে ধরতে পারবে না। পয়েন্ট কাটা না গেলে ইউভেন্টাস এখনো নাপোলির চেয়ে ১৫ পয়েন্ট দূরে থাকতো।

এদিন ম্যাচ শেষের সাত মিনিট আগে ইনজুরির কারণে ফেডেরিকো কিয়েসার মাঠ ত্যাগ ছিল ইউভেন্টাসের একমাত্র দুঃশ্চিন্তার কারণ। স্টপেজ টাইমের শেষ মুহূর্তে লিয়ান্দ্রো পারেডেসের সাথে বিতন্ডায় জড়িয়ে পড়েন ডানিলো ডি’এম্ব্রোসিও, ফলে দুজনকেই লালকার্ড দেখতে হয়েছে।

নাপোলির ইন-ফর্ম নাইজেরিয়ান স্ট্রাইকার ভিক্টর ওশিমেন তুরিনোতে দুই গোল করেছেন। দুই অর্ধের দুটো গোলই এসেছে হেড থেকে। ফলে, এবার ওশিমেনের গোলসংখ্যা হলো ২১। ৩৫ মিনিটে স্পট কিক থেকে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন কাভিটা কাভারাটসখেইলা। মৌসুমে এটি তাঁর চতুর্দশ গোল। এছাড়া, ৬৮ মিনিটে কাভারাটসখেইলার অ্যাসিস্টে নাপোলির হয়ে চতুর্থ গোলটি করেছেন টানগাই এনডোম্বেলে। সিরি-আ লিগে এটি তাঁর প্রথম গোল।

বড় এই জয়ে ১৯৯০ সালের পরে প্রথমবারের মতো লিগ শিরোপা জয়ের পথে আরেকধাপ এগিয়ে গেলো নাপোলি। সিরি-আ লিগের এই মুহূর্তে সবচেয়ে ধারাবাহিক স্ট্রাইকার ওশিমেনের বিশ্বাস, নাপোলির জন্য লিগ শিরোপা জয় এখন সময়ের ব্যাপার; এমনকি চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জয়েরও ভালো সম্ভাবনা রয়েছে তাঁদের।

এই পরাজয়ে তুরিনো, বোলোনিয়া ও নবম স্থানে থাকা ফিওরেন্টিনার সাথে ৩৭ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের একাদশ স্থানে নেমে গেছে। লিসকে ১-০ গোলে পরাজিত করে সব ধরনের প্রতিযোগিতায় টানা সপ্তম জয় পেয়েছে ফিওরেন্টিনা।

অন্যদিকে, উত্তেজনাপূর্ণ ম্যাচে রোমাকে ১-০ গোলে হারিয়ে টেবিলের দ্বিতীয় স্থান ধরে রেখেছে লাৎসিও। ৬৫ মিনিটে মাত্তিয়া জাক্কাগনির গোলে লাৎসিওর জয় নিশ্চিত হয়। ৩২ মিনিটে দ্বিতীয় হলুদ কার্ডের কারণে ব্রাজিলিয়ান মিডফিল্ডার রজার ইবানেজ মাঠ ত্যাগে বাধ্য হলে ১০ জনের দলে পরিণত হয়েছিল রোমা। এছাড়া, ম্যাচ-পরবর্তী বিরোধে রোমার ব্রায়ান ক্রিস্টান্টে ও লাৎসিওর অ্যাডাম মারুসিচকেও লালকার্ড দেখতে হয়েছে। 

বিরতির আগে উভয় দলের কোচিং স্টাফকে ডাগ আউট ছেড়ে যেতে হয়। এ-কারণে ম্যাচটি পাঁচ লালকার্ডের মধ্য দিয়ে শেষ হয়েছে।

পঞ্চম স্থানে থাকা রোমা শীর্ষ চারে ওঠার সুযোগ হাতছাড়া করেছে। শনিবার উদিনেজের কাছে ৩-১ গোলে পরাজিত এসি মিলানের চেয়ে এক পয়েন্ট পিছিয়ে রইলো রোমা।

Loading...