loader image for Bangladeshinfo

শিরোনাম

  • রোববার পবিত্র শবেবরাত

  • ছায়ানটে সমধারা’র দশম কবিতা উৎসব অনুষ্ঠিত

  • বঙ্গবন্ধু অ্যাপ’ উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী

  • স্টপেজ টাইমের গোলে আর্সেনালকে হারালো পোর্তো

  • চ্যাম্পিয়ন্স লিগে বার্সার সাথে ড্র করেছে নাপোলি

রাঙ্গামাটি ও নাটোরে ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাম্পেইন ১২ ডিসেম্বর


রাঙ্গামাটি ও নাটোরে ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাম্পেইন ১২ ডিসেম্বর

জাতীয় ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাম্পেইন ২০২৩ উপলক্ষে আগামী ১২ ডিসেম্বর রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলায় সর্বমোট ৮১,২২৪ জন শিশুকে ভিটামিন এ প্লাস ক্যাম্পেইনের আওতায় আনা হবে বলে জানিয়েছেন জেলা সিভিল সার্জন ডা. নিহার রঞ্জন নন্দী। জাতীয় ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাম্পেইন উপলক্ষে বুধবার (৬ ডিসেম্বর) জেলা সিভিল সার্জন অফিসের উদ্যোগে ও জাতীয় পুষ্টিসেবা, স্বাস্থ্য অধিদপ্তর এবং স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের বাস্তবায়নে সিভিল সার্জন কনফারেন্স হলে  অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে জেলা সিভিল সার্জন ডা: নিহার রঞ্জন নন্দী সাংবাদিকদের এ-তথ্য জানান। খবর – স্থানীয় সংবাদ মাধ্যমের।

জেলা সিভিল সার্জন বলেন, আগামী ১২ ডিসেম্বর জাতীয় ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাম্পেইনে জেলায় এবার ১,৩১৪ টি কেন্দ্রের মাধ্যমে ৬-১১ মাস বয়সী ৯,৩৫৯ জনকে একটি করে নীল রঙের ভিটামিন এ ক্যাপসুল এবং ১২-৫৯ মাস বয়সী ৭১,৮৩৯ জনকে একটি লাল রঙের ভিটামিন এ ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে। রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলায় সরকারের এ কার্যক্রম বাস্তবায়নে তিনি সকলের সহযোগিতা কামনা করেন।

এদিকে নাটোর জেলার প্রায় আড়াই লাখ শিশুকে ১২ ডিসেম্বর ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাপসুল খাওয়ানোর লক্ষ্যে নাটোরে ওরিয়েন্টেশন কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়েছে। বৃহস্পতিবার (৭ ডিসেম্বর) সকালে সিভিল সার্জনের সম্মেলন কক্ষে জেলা পর্যায়ে কর্মরত সাংবাদিকদের জন্যে এই কর্মশালা আয়োজন করা হয়।

কর্মশালায় সভাপতির বক্তব্যে সিভিল সার্জন ডাঃ মুহাম্মদ মশিউর রহমান বলেন, ভিটামিন ‘এ’ গ্রহণ করা হলে শিশুদের স্বাভাবিক বৃদ্ধি নিশ্চিত হওয়ার পাশাপাশি দৃষ্টিশক্তি স্বাভাবিক থাকে এবং রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি পায়। ফলে শিশুর স্বাভাবিক শারীরিক ও মানসিক বিকাশ ঘটে।

ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল গ্রহণের সুবিধা এবং বাস্তবায়ন কৌশল নিয়ে মূল বক্তব্য উপস্থাপন করেন মেডিকেল অফিসার ডাঃ মোহাম্মদ রাসেল।

কর্মশালায় জানানো হয়, জেলার মোট দুই লাখ ৪৮,৫৯৫ শিশুকে ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে। এরমধ্যে ৬ থেকে ১১ মাস বয়সী ২৫,৫৬২ শিশুকে নীল রঙের ক্যাপসুল এবং ১২ থেকে ৫৯ মাস বয়সী দুই লাখ ২৩ হাজার ৩৩ শিশুকে লাল রঙের ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে। জেলার ১,৩৮৮টি কেন্দ্রে ভিটামিন ‘এ’ ক্যাম্পেইন হবে। প্রতিকেন্দ্রে একজন স্বাস্থ্যকর্মীর সাথে দুইজন করে স্বেচ্ছাসেবক দায়িত্ব পালন করবেন। 

Loading...