loader image for Bangladeshinfo

ব্রেকিং নিউজ

  • মোহাম্মদ নাসিমের অবস্থা সংকটাপন্ন, ৭২ ঘণ্টা নিবিড় পর্যবেক্ষণে

  • দেশে করোনায় ২৪ ঘন্টায় ৩৫ জনের মৃত্যু, ২৬৩৫ জন শনাক্ত, সুস্থ ৫২১ জন

  • প্রবাসী-আয়ে ১৬.৫৬ বিলিয়ন মার্কিন ডলারের নতুন রেকর্ড

  • দেশে করোনাভাইরাসে তরুণদের আক্রান্তের হার বেশি

  • ঘরে বসেই খোলা যাবে সোনালী ব্যাংকের হিসাব

বার্সাকে হারিয়ে লা লিগায় শীর্ষে ফিরেছে রিয়াল মাদ্র্রিদ


বার্সাকে হারিয়ে লা লিগায় শীর্ষে ফিরেছে রিয়াল মাদ্র্রিদ

নিজেদের মাঠে শেষ চারটি ‘এল্ ক্লাসিকো’তে হেরেছিল রিয়াল মাদ্রিদ। সবমিলিয়ে সাতটি এল্ ক্লাসিকোতে জয়বিহীন। তার উপর শেষ দুই ম্যাচের হতাশাজনক নৈপুণ্যে শীর্ষস্থান হারিয়েছিল ক্লাবটি। তাই লা লিগার লড়াইয়ে টিকে থাকতে ক্লাসিকোতে জয়ের বিকল্প ছিল না দলটির। আর তাই জিতেই আবারো লিগের শীর্ষে ফিরেছেন জিনেদিন জিদানের শিষ্যরা। সান্তিয়াগো বার্নাব্যুতে রোববার (১ মার্চ) বার্সেলোনাকে ২-০ গোলের ব্যবধানে হারায় রিয়াল। 

রিয়ালের কাছে শীর্ষস্থান হারানোর দিনে নতুন রেকর্ড গড়েছেন বার্সা অধিনায়ক লিওনেল মেসি। বার্সার হয়ে সর্বোচ্চ ৪৩টি এল ক্লাসিকো ম্যাচ মাঠে নামলেন এই আর্জেন্টাইন। আগে জাভি হার্নান্দেজের সঙ্গে সমান ৪২টি করে এল ক্লাসিকো ম্যাচ খেলেছিলেন তিনি। অন্যদিকে এদিন মাঠে নেমে সর্বোচ্চ এল ক্লাসিকো ম্যাচ খেলার রেকর্ডটা আরও জোরদার করেছেন রিয়াল অধিনায়ক সার্জিও রামোস। এবার ৪৪তম ক্লাসিকো ম্যাচ খেললেন রিয়াল অধিনায়ক।

এবার শেষ দু’টি লিগ ম্যাচে পাঁচ পয়েন্ট হারিয়েছিল রিয়াল। চ্যাম্পিয়ন্স লিগেও শেষ ষোলোর ম্যাচে ঘরের মাঠে ম্যানচেস্টার সিটির কাছে পরাজিত হয় দলটি। তবে এদিন ভিন্ন এক রিয়ালই মাঠে নেমেছিল। প্রথমার্ধে সমান তালে লড়াই হলেও দ্বিতীয়ার্ধে প্রায় একক প্রাধান্য ছিল স্বাগতিক দলের। ষষ্ঠ মিনিটে প্রথম সুযোগটি পান তাঁরা। কর্নার থেকে ডি-বক্সে বল পেয়েছিলেন করিম বেনজেমা; তবে তাঁর নেওয়া ভলি লক্ষ্যভ্রষ্ট হয়।

নয় মিনিট পরে ভিনিসিয়ুস জুনিয়রের কাটব্যাক থেকে ভালো সুযোগ পেয়েছিলেন টনি ক্রুস, যদিও তাঁর শট লক্ষ্যে থাকেনি। ২১তম মিনিটে অবিশ্বাস্য এক মিস করেন গ্রিজমান। মেসির বাড়ানো বলে দারুণ এক কাটব্যাক করেছিলেন জর্দি অলবা; কিন্তু ফাঁকায় থেকেও গ্রিজমানের নেওয়া শট আকাশে উঠে যায়।

২৯তম মিনিটে বেনজেমার কাটব্যাক থাকে আবারো ভালো সুযোগ পেয়েছিলেন ক্রুস, কিন্তু এবারও লক্ষ্যে রাখত পারেননি এই জার্মান তারকা। পরের মিনিটে আর্তুরো ভিদালের কাছ থেকে বল পেয়ে গ্রিজমানের বাড়ানো বল থেকে মেসির শট সহজেই ধরে ফেলেন রিয়াল গোলরক্ষক থিবাউ কর্তোয়া।

৩৪তম মিনিটে দিনের সেরা সুযোগটি মিস করেন আর্থুর মেলো; অবশ্য দারুণ মুন্সিয়ানা দেখিয়েছেন রিয়াল গোলরক্ষক কর্তোয়া। নিজেদের অর্ধ থেকে বাড়ানো বলে গোলরক্ষক একা পেয়ে গিয়েছিলেন আর্থুর; কিন্তু তাঁর শট দারুণ দক্ষতায় ফিরিয়ে রিয়ালকে বাঁচিয়ে দেন কর্তোয়া। চার মিনিট পরে আরও একটি দারুণ সেইভ করেন কর্তোয়া। এবার তিনি হতাশ করেন মেসিকে। বুসকেতসের বাড়ানো বল থেকে মেসির দারুণ শট ফিরিয়ে দেন রিয়াল গোলরক্ষক।

৫৬তম মিনিটে অবিশ্বাস্য এক সেইভ করেন বার্সেলোনা গোলরক্ষক মার্ক-আন্দ্রে টার স্টেগান। মার্সেলোর কাছ থেকে বল পেয়ে ডি-বক্সের সামান্য বাইরে থেকে সময় নিয়ে নিখুঁত এক শট করেন ইস্কো; কিন্তু স্টেগান অসাধারণ দক্ষতায় রুখে দেন দেন সেই প্রচেষ্টা।

পাঁচ মিনিট পরে আবারো অবিশ্বাস্য এক সেইভ করেন স্টেগান। আবারো তিনি হতাশ করেন সেই ইস্কোকে। কার্বাহালের ক্রস থেকে ফাঁকায় দারুণ শট নিয়েছিলেন স্প্যানিশ ফরোয়ার্ড - যা ঠেকিয়ে দেন স্টেগান। তবে ফেরানোর পরে বল গড়িয়ে জালের দিকেই যাচ্ছিল। একেবারে গোললাইন থেকে তা ফিরিয়ে দেন জেরার্ড পিকে।

৬৩তম মিনিটে ভালো সুযোগ মিস করেন বেনজেমা। দানি কার্বাহালের কাছ থেকে ডান প্রান্তে একেবারে ফাঁকায় বল পেয়েছিলেন এই ফরাসি। কিন্তু তাঁর ভলি লক্ষ্যে থাকেনি। ৭০তম মিনিটে বদলি নেমেই প্রথম ছোঁয়া গোল দেওয়ার খুব কাছাকাছি চলে গিয়েছিলেন মার্টিন ব্র্যাথওয়েট। রামোসের কাছ থেকে বল কেড়ে নিয়েছিলেন। তবে শেষ মুহূর্তে নিয়ন্ত্রণ হারালে নষ্ট হয় সুযোগটি।

পরের মিনিটেই পাল্টা আক্রমণ থেকে গোল করে রিয়াল। টনি ক্রুসের কাছ থেকে বল আদান প্রদান করে জোরালো শট নিয়েছিলেন ভিনিসিয়ুস; পিকের পায়ে লেগে দিক বদলে বল জালে জড়ালে এগিয়ে যায় স্বাগতিকরা (১-০)। ৭৫তম মিনিটে ফাঁকায় বল পেয়ে গিয়েছিলেন মেসি। যাহোক, মার্সেলোর দারুণ ডিফেন্ডিংয়ে তা বিপদমুক্ত হয়।

৮৩তম মিনিটে মেসির নেওয়া ফ্রিকিক থেকে ফাঁকায় হেড দেওয়ার সুযোগ পেয়েছিলেন পিকে; কিন্তু তাঁর হেড লক্ষ্যে থাকেনি।

ম্যাচের শেষ মুহূর্তে বার্সার কফিনে শেষ পেরেকটি ঠুকে দেন বদলি খেলোয়াড় মারিয়ানো দিয়াজ। কার্বাহালের বাড়ানো বল নিয়ে দারুণ দক্ষতায় দুই ডিফেন্ডারকে পেছনে ফেলে ডি-বক্সে ঢুকে ঠাণ্ডা মাথায় স্টেগানকে ফাঁকি দেন এই তরুণ (২-০)।

২৬ ম্যাচে ১৬টি জয় ও ৮টি ড্রয়ে ৫৬ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে উঠে এলো রিয়াল। সমান-সংখ্যক ম্যাচে দুই পয়েন্ট কম নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে আছে বার্সেলোনা।

Loading...