loader image for Bangladeshinfo

ব্রেকিং নিউজ

  • করোনা-সংক্রমণ বৃদ্ধিতে ঢাকার সঙ্গে সাত জেলার যোগাযোগ বন্ধ

  • জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের সম্মান প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থীদের শর্তসাপেক্ষে প্রমোশন

  • ইনজুরি সময়ের গোলে ইকুয়েডরকে রুখে দিল ভেনেজুয়েলা

  • ম্যাচ জিতে পুরনো রেকর্ড স্পর্শ করলো ইতালি, হেরেও নকআউটে ওয়েল্স

  • আরও ৫৩,৩৪০টি পরিবারকে বিনামূল্যে ঘর প্রদান করলেন প্রধানমন্ত্রী

ভারতের নতুন করোনা-ভ্যারিয়েন্ট বিশ্বের জন্য উদ্বেগজনক: বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা


ভারতের নতুন করোনা-ভ্যারিয়েন্ট বিশ্বের জন্য উদ্বেগজনক: বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা

ভারতে গত বছর পাওয়া করোনাভাইরাসের নতুন ভ্যারিয়েন্টকে ‘বিশ্বের জন্য উদ্বেগজনক’ হিসেবে ঘোষণা করেছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)। সংস্থাটি জানায়, প্রাথমিক গবেষণায় দেখা গেছে যে, ভারতে শনাক্ত হওয়া বি.১.৬১৭ ভ্যারিয়েন্টটি অন্যান্য ভ্যারিয়েন্টের চেয়ে খুব দ্রুত ছড়িয়ে পড়ছে। মঙ্গলবার (১১ মে) বিবিসি জানায়, এর আগে যুক্তরাজ্য, দক্ষিণ আফ্রিকা ও ব্রাজিলে প্রথম শনাক্ত হওয়া ভ্যারিয়েন্টকেও ‘উদ্বেগজনক’ বলে ঘোষণা দেওয়া হয়েছিল।

সাধারণত কয়েকটি বৈশিষ্ট্যের ভিত্তিতে কোনো ভাইরাস ভ্যারিয়েন্টকে ‘উদ্বেগজনক’ হিসেবে চিহ্নিত করা হয়ে থাকে; যেমন – দ্রুত সংক্রমণ ক্ষমতা, গুরুতর অসুস্থতা সৃষ্টি, অ্যান্টিবডি বা চিকিৎসা-পদ্ধতি কিংবা টিকার কার্যকারিতা কমে যাওয়া ইত্যাদি। এই মানদণ্ডগুলোর অন্তত একটি থাকলে সেই ভ্যারিয়েন্টকে ‘উদ্বেগজনক’ বলে চিহ্নিত করা হয়।

ডব্লিউএইচও জানিয়েছে, ভারতীয় ভ্যারিয়েন্টটি ইতোমধ্যে বিশ্বের ৩০টিরও বেশি দেশে ছড়িয়ে পড়েছে। নতুন এই ভ্যারিয়েন্ট নিয়ে আরও গবেষণা প্রয়োজন। ভারতে এই ভ্যারিয়েন্টের সংক্রমণে বিশেষ কোনো কারণ আছে কি-না – তা খুঁজে বের করার চেষ্টা চলছে বলে জানিয়েছে ডব্লিউএইচও।

ভারতে করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ের সংক্রমণ মারাত্মক হয়ে উঠেছে। দেশটির হাসপাতালগুলো রোগী সামাল দিতে হিমশিম খাচ্ছে। রাজধানী দিল্লিসহ বেশ কয়েকটি রাজ্যে অক্সিজেনের ঘাটতি দেখা যাচ্ছে। শ্মশানগুলোতে দিন-রাত মরদেহ সৎকারের কাজ চলছে।

গত ২৪ ঘণ্টায় ভারতে নতুন করে তিন লাখ ৬৬,১৬১ জনের শরীরে করোনা-শনাক্ত হয়েছে। সরকারি হিসাব অনুযায়ী, একই সময়ের মধ্যে মারা গেছেন ৩,৭৫৪ জন। অবশ্য, বিশেষজ্ঞরা বলছেন, দেশটিতে প্রকৃত সংক্রমণ ও মৃতের সংখ্যা সরকারি হিসাবের চেয়ে বেশি হতে পারে।

ডব্লিউএইচও জানিয়েছে, বর্তমান ভ্যাকসিনগুলো ভারতীয় ভ্যারিয়েন্টের বিরুদ্ধেও কার্যকর। তবে, ডব্লিউএইচও’র প্রযুক্তিগত নেতৃত্ব বলেছে, ভ্যাকসিনের কার্যকারিতা কমে যাওয়ার কিছু প্রমাণ থাকতেও পারে এক্ষেত্রে।

নতুন ভ্যারিয়েন্ট ও দেশে করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ার মধ্যে যোগসূত্র আছে বলে জানিয়েছে ভারত সরকার। তবে, এটি এখনও স্পষ্ট নয় বলে জানায় ডব্লিউএইচও।

কোভিড-১৯ সংক্রমণ ঠেকাতে গত একমাসে ভারতের বেশ কয়েকটি রাজ্য লকডাউন, কারফিউ ও নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে। তবে, সারাদেশে লকডাউন ঘোষণা ও ভাইরাসের বিস্তার বন্ধের জন্য কঠোর ব্যবস্থা নিতে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সরকার চাপের মধ্যে থাকলেও এখন পর্যন্ত তেমন কোনো ঘোষণা আসেনি।

Loading...