loader image for Bangladeshinfo

ব্রেকিং নিউজ

  • যুক্তরাজ্যের ভ্রমণ লাল-তালিকায় আর নেই বাংলাদেশ

  • নভেম্বর থেকে ইউএস-বাংলার ঢাকা-মালে ফ্লাইট শুরু

  • ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আবাসিক হল খুলবে ৫ অক্টোবর

  • ছয় ঘণ্টা নয়, চার ঘণ্টা বন্ধ থাকবে সিএনজি ফিলিং স্টেশন

  • টেকসই ভবিষ্যত নিশ্চিতে প্রধান অর্থনীতির দেশগুলোর ভূমিকা চান প্রধানমন্ত্রী

স্বাধীনতার ৫০ বছর উপলক্ষ্যে স্মারক ক্রেডিট কার্ড চালু করেছে স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড


স্বাধীনতার ৫০ বছর উপলক্ষ্যে স্মারক ক্রেডিট কার্ড চালু করেছে স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড

স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড বাংলাদেশের স্বাধীনতার ৫০ বছর উপলক্ষে সীমিত সংস্করণে স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড প্ল্যাটিনাম ক্রেডিট ক্রেডিট কার্ড চালু করেছে। সক্রিয় হওয়া প্রতিটি কার্ডের জন্য ব্যাংক মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘর তহবিল-এ অনুদান দেবে, এবং কার্ডধারীরা যাদুঘরের দাতাদের তালিকায় তাঁদের নাম নিবন্ধিত করার এবং অন্যান্য বিশেষ সুযোগ সুবিধা ভোগ করতে পারবে। এই স্মারক ক্রেডিট কার্ড স্বাধীনতার উদযাপন এবং স্বাধীন বাংলাদেশের ৫০ বছরের অর্জনকে স্মরণ করে প্রচলিত করা হচ্ছে।

স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড সীমিত সংস্করণের ক্রেডিট কার্ড ডিজাইন করতে ঢাকা ইয়েহ্-কে নিযুক্ত করেছিল। শিল্পীর চোখে বাংলাদেশের জাতীয় গর্বের চিত্র রয়েল বেঙ্গল টাইগার এবং এর প্রাকৃতিক আবাসস্থল সুন্দরবন উপস্থাপন করা হয়েছে, যা সমস্ত প্রতিকূলতার উর্ধ্বে উঠে এগিয়ে যাওয়ার জন্য জাতির সহনশীলতা এবং দৃঢ়তা প্রতীকায়িত করে।

স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড বাংলাদেশের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা নাসের এজাজ বিজয় বলেন, “স্মারক কার্ডটি অসংখ্য মুক্তিযোদ্ধাদের ঐতিহাসিক কৃতিত্বের প্রতি আমাদের কৃতজ্ঞতা, সংহতি এবং গর্বের প্রকাশ, যাদের নিঃস্বার্থ আত্মত্যাগ বাংলাদেশের স্বপ্নকে সম্ভব করে তুলেছিল। মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘরের সাথে অংশীদার হতে পেরে আমরা কৃতজ্ঞ। এটা এমন একটি সংস্থা – যা আমাদের মুক্তিযুদ্ধের আদর্শ এবং স্মৃতি সংরক্ষণে এক অপরিহার্য ভূমিকা পালন করছে।”

তিনি আরও বলেন, “কার্ডে চিত্রিত রয়েল বেঙ্গল টাইগার বাংলাদেশের চেতনার প্রতিচ্ছবি: সংকল্পবদ্ধ, স্বতন্ত্র এবং দৃঢ়। এটি সেই মনোভাব, যা দেখায় যে – আমরা সকল বাধাঁ অতিক্রম করে মহামারির প্রতিকূলতাকে পরাভূত করে বাঘের মতোই সামনে এগিয়ে যেতে প্রস্তুত। 

আমরা যখন ডিজিটাল যুগের প্রথম বিশ্বব্যাপী মহামারির মুখোমুখি হচ্ছি, আমাদের পেশাগত এবং ব্যক্তিগত জীবনে ব্যাপক পরিবর্তন হয়েছে, নতুন অভ্যাস এবং চাহিদা তৈরি হয়েছে, স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড – ডিজিটাল প্রযুক্তি এবং ক্রেডিট কার্ডের ক্ষমতা এবং সম্ভাবনা নিয়ে ক্লায়েন্ট, রেগুলেটর এবং স্টেকহোল্ডারদের সাথে ঘনিষ্ঠভাবে কাজ করছে, যাতে এই অভূতপূর্ব পরিস্থিতিতে আমাদের ক্লায়েন্টদের আরও বেশি সুবিধা দেয়া যায়”

স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড প্ল্যাটিনাম ক্রেডিট কার্ড দ্বারা প্রদত্ত বিস্তৃত সুবিধাগুলির পাশাপাশি, স্মারক কার্ডটি নিম্নলিখিত বিশেষ সুযোগগুলি প্রদান করবে:

· কার্ডহোল্ডারের জন্য বিনা খরচে চার জন সঙ্গীসহ যাদুঘরের গ্যালারীগুলি দেখার সুবিধা

· অগ্রিম বুকিং সাপেক্ষে ভিজিটের সময় কার্ডহোল্ডার এবং সহযোগীদের জন্য বিশেষ গাইডেড ট্যুর

· যাদুঘরের লাইব্রেরি এবং গবেষণা শাখায় প্রবেশের সুযোগ

· যাদুঘর দ্বারা প্রকাশিত বই এবং সিডি ক্রয়ের ক্ষেত্রে ১০% ছাড়

· যাদুঘরে ভার্চুয়াল ট্যুর-এর সুযোগ

· জাদুঘর দ্বারা আয়োজিত ইভেন্ট এবং বিশেষ প্রদর্শনী সম্পর্কে নিয়মিত আপডেট

দীর্ঘ ১১৫ বছরেরও বেশি সময় ধরে বাংলাদেশে নিরবচ্ছিন্ন কার্যক্রম পরিচালনা করা স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড ব্যাংকই দেশের একমাত্র বহুজাতিক ব্যাংক, যার রয়েছে বাংলাদেশে দৃঢ় স্থানীয় উপস্থিতি এবং এর বৈশ্বিক পরিধি ও পণ্য কাজে লাগানোর সক্ষমতার অনন্য এক সংমিশ্রণ। ব্যাংক শুরু থেকেই এই জাতির অগ্রগতির অংশীদার হয়েছে। বাংলাদেশের স্বাধীনতার ৫০ বছর উদযাপন উপলক্ষে ব্যাংকটি একাধিক উদ্যোগ গ্রহণ করছে:

· বাংলাদেশের জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলামকে নিয়ে জেমস অফ নজরুল দেশের শীর্ষস্থানীয় ১০০জন কণ্ঠশিল্পী ও নৃত্যশিল্পীর সমন্বয়ে বিশেষ সংগীত-ভিডিও প্রকাশ

· ৫০তম স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের পায়ে হেটে অদম্য পদযাত্রা উদযাপন

· বাংলাদেশ ইনভেস্টমেন্ট ডেভেলপমেন্ট অথোরিটি (বিডা)-এর সাথে যৌথ উদ্যোগে বাংলাদেশকে একটি বিনিয়োগের গন্তব্য হিসাবে উন্নীত করতে এবং বৈশ্বিক বিনিয়োগকে দেশে আকর্ষণ করার জন্য ‘শোকেজ বাংলাদেশ’ প্রদর্শন এর আয়োজন

· স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্রের গান নিয়ে ব্যাটেল অফ কর্পোরেট ব্যান্ড-এর আয়োজন

· স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড-এর প্রাক্তন কর্মীদের জন্য বিশেষ স্বীকৃতি, যাঁরা মুক্তিযোদ্ধা ছিলেন

নতুন পণ্য এবং সেবা চালুর ক্ষেত্রে অগ্রণী ভূমিকা পালন করায়, স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড বাংলাদেশ রিটেইল ব্যাংকিং-এ দেশে বিশেষ স্থান দখল করে আছে। স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড ক্রেডিট কার্ড প্রবর্তনকারী প্রথম ব্যাংক। বাংলাদেশে প্রথম এটিএম চালুর পাশাপাশি রিটেইল গ্রাহকদের জন্য ইন্টারনেট ব্যাংকিং সেবার সাথে অলটারনেট চ্যানেল ব্যাংকিং-দেশে প্রথম চালু করেছিল স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড ব্যাংকং। 

অগ্রগামিতার ধারাবাহিকতা অব্যাহত রেখে, স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড সর্বপ্রথম ক্লায়েন্টদের প্রয়োাজনে ২৪ ঘন্টা কল সেন্টার চালু করেছিল। স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড হলো দেশের একমাত্র বহুজাতিক ইউনিভার্সাল ব্যাংক, যারা ক্লায়েন্টদের যেকোনো চাহিদা পূরণের জন্য একটি সম্পূর্ণ আর্থিক পরিষেবা প্রদান করে।

– সংবাদ বিজ্ঞপ্তি

Loading...