loader image for Bangladeshinfo

ব্রেকিং নিউজ

  • মাঠে এমবাপে, পিএসজি’র বড় জয়

  • শ্রীলঙ্কা দলে ফিরলেন লাসিথ মালিঙ্গা

  • চট্টগ্রাম জহুর হকার্স মার্কেটে আগুন, শতাধিক দোকান পুড়লো

  • পিছিয়েছে মৌসুমের প্রথম এল ক্লাসিকো

  • শেখ রাসেলের কবরে আওয়ামী লীগ ও বিভিন্ন সংগঠনের শ্রদ্ধা

সেভিয়ার বিরুদ্ধে বার্সার জয়ে মেসির প্রথম গোল


সেভিয়ার বিরুদ্ধে বার্সার জয়ে মেসির প্রথম গোল

এবার মৌসুম শুরুর আগে পড়েছিলেন আঘাতের কবলে। তবে, পুরোপুরি ফিট হওয়ার আগেই দলের প্রয়োজনে মাঠে নেমেছেন, যদিও গোল পাননি। যাহােক, রোববার (৬ অক্টোবর) সেভিয়ার বিপক্ষে মৌসুমের গোল পেলেন বার্সেলোনার অধিনায়ক লিওনেল মেসি। তাঁর গোলের তালিকায় ফেরার দিনে বড় জয়ও পেয়েছে ক্লাব। লা লিগায় সেভিয়াকে ৪-০ গোলের ব্যবধানে হারিয়েছে স্প্যানিশ চ্যাম্পিয়ন দলটি।

এদিন নিজেদের মাঠ ন্যু ক্যাম্পে শুরু থেকেই আক্রমণাত্মক খেলেছে বার্সা। অবশ্য গোল করার মতো ভালো সুযোগ প্রথমে পেয়েছিল সেভিয়াই। একাদশ মিনিটে লিকাস ওকাম্পোসের পাস থেকে দারুণ এক শট নিয়েছিলেন লুক ডি ইয়ং; তবে অসাধারণ দক্ষতায় তা ফিরিয়ে দেন বার্সা-গোলরক্ষক মার্ক আন্দ্রে টার স্টেগান।

ষোড়শ মিনিটে ছোট ডি-বক্সে একবারে ফাঁকায় বল পেয়ে গিয়েছিলেন জেরার্ড পিকে, কিন্তু ঠিকভাবে বলের নিয়ন্ত্রণ নিতে না পারায় সেই সুযোগ নষ্ট হয়। পরের মিনিটে সুযোগ ছিল সেভিয়ারও। ওকাম্পাসের হেড থেকে ফাঁকায় বল পেয়েছিলেন লুক ডি ইয়ং, তবে লক্ষ্যে থাকেনি।

২৬তম মিনিটেও এগিয়ে যেতে পারতো সেভিয়া। ওকাম্পাসের ক্রস থেকে দারুণ হেড করেছিলেন লুক ডি ইয়ং; অল্পের জন্য তা পোস্টের উপর দিয়ে চলে যায়। পরের মিনিটেই পাল্টা আক্রমণে গোল খেয়ে বসে দলটি। নেলসন সেমেদোর ক্রস থেকে দারুণ এক বাই সাইকেল কিকে জাল খুঁজে পান লুইস সুয়ারেজ (১-০)। 

চার মিনিট পরেই ব্যবধান দ্বিগুণ করে বার্সা। বাঁপ্রান্ত থেকে আর্থুর মেলোর নিখুঁত এক পাসে সেভিয়ার গড়া অফসাইডের ফাঁদ ভেঙে আলতো টোকায় দিক বদলে লক্ষ্যভেদ করেন আর্তুরো ভিদাল (২-০)।

৩৪তম মিনিটে ফ্রিক থেকে নেওয়া মেসির শট অল্পের জন্য লক্ষ্যে থাকেনি। পরের মিনিটে আবার ব্যবধান আরও বাড়ায় বার্সা। দারুণ এক গোল করেন উসমান ডেম্বেলে। আর্থুরের কাছ থেকে বল পেয়ে ডি বক্সে ঢুকে এক ডিফেন্ডারকে কাটিয়ে দারুণ এক শটে জাল খুঁজে নেন এই ফরাসি তারকা (৩-০)।

৪৯তম মিনিটে আর্থুর মেলোর ভুলে গোল খেতে বসেছিল বার্সা। ডিবক্সের সামনে তাঁর কাছ থেকে বল কেড়ে নেন লুক ডি ইয়ং; ভালো শটও নিয়েছিলেন। যাহোক, শটটি বার পোস্টে লেগে ফিরে আসলে হতাশা বাড়ে অতিথিদের। 

চার মিনিট পরে সার্জিও রাগুলুনের দূরপাল্লার শট ঠেকিয়ে দেন গোলরক্ষক স্টেগান। ৫৮তম লুক ডি ইয়ংয়ের শট অল্পের জন্য লক্ষ্যভ্রষ্ট হয়।

৬০তম মিনিটে মেসি পাঁচজন খেলোয়াড়কে কাটিয়ে শট নিয়েছিলেন। তবে দারুণভাবে তা ঠেকিয়ে দেন সেভিয়া গোলরক্ষক থমাস ভাসলিক। পরের মিনিটে পিকের হেড অল্পের লক্ষ্য লক্ষ্যভ্রষ্ট হয়। ৬৮ মিনিটে ভিদালের বাড়ানো বলে গোলরক্ষককে একা পেয়েও বল অনেক উঁচুতে মারেন ডেম্বেলে।

৭৮ মিনিটে আসে মেসির বহু-কাঙ্ক্ষিত গোল। ডি বক্সের সামান্য বাইরে থেকে নেওয়া ফ্রিকিকে লক্ষ্যভেদ করেন এই আর্জেন্টাইন (৪-০)। ৮৩তম মিনিটে সুয়ারেজের সঙ্গে দেওয়া নেওয়া করে রাকিতিচের দূরপাল্লার দারুণ শট অল্পের জন্য জালমুখো হয়নি।

৮৬ মিনিটের মেসির আরেকটি দূরপাল্লার শট লুফে নেন সেভিয়া গোলরক্ষক। পরের মিনিটে সুয়ারেজ পেতে পারতেন নিজের দ্বিতীয় গোল। মেসির কাছ থেকে বল পেয়ে গোলরক্ষকের শরীরে মারেন তিনি।

৮৯ মিনিটে নয়জনের দলে পরিণত হয় বার্সেলোনা। সেভিয়ার হার্নান্দেজকে ডিবক্সের সামান্য বাইরে ফাউল করেন বদলি খেলোয়াড় রোনাল্ড আরুজো। তাঁকে লাল কার্ড দেখান রেফারি। এই সিদ্ধান্তের প্রতিবাদ করায় ডেম্বেলেকেও লাল কার্ড দেখান তিনি। এরপর সের্জিও বুসকেতসকে হলুদ কার্ড দেখান। 

যাহােক, এর কোনো সুবিধা নিতে পারেনি অতিথি দলটি। ফলে বড় ব্যবধানে পরাজয় নিয়েই মাঠ ছাড়তে হয়েছে তাঁদের।

Loading...